অবিস্মরণীয় জয় অস্ট্রেলিয়ার

অবিস্মরণীয় জয় অস্ট্রেলিয়ার

ক্রীড়া প্রতিবেদক

ইংল্যান্ডের দেওয়া ৩০৩ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে প্রথম ৭৩ রান তুলতে ৫ উইকেট হারালেও, ম্যাক্সওয়েল ও এলেক্স ক্যারির জোড়া সেঞ্চুরিতে ৩ উইকেটের জয় পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া। এই জয়ে ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ২-১ এ জিতে নিলো সফরকারী অস্ট্রেলিয়া।

অথচ স্টোকস ও রুটের প্রথম দিকের বোলিং দাপটে সফরকারী ব্যাটসম্যানরা যখন একের পর এক প্যাভিলিয়নের পথ ধরেছিলেন, তখন মনে হচ্ছিলো ইংল্যান্ডের জয় কেবলই সময়ের ব্যাপার। মাত্র ৭৩ রানেই যখন অস্ট্রেলিয়ার টপ ৫ ব্যাটসম্যান নেই, ঠিক তখনি যেন জয়ের পণ করেন ম্যাক্সওয়েল ও এলেক্স ক্যারি।

দলের বিপদে দুই জনের কেওই নেন নি কোনো অপ্রয়োজনীয় রান, যথাযথ ভাবে স্ট্রাইক রোটেট করেছেন, সচল রেখেছেন দলের রানের চাকা। মাঝে একবার জীবন পেয়ে দুজনই হয়েছেন আরো সচেতন। ২১২ রানের এই জুটি দলীয় ২৮৫ রানে যখন ভাঙল, ততক্ষণে দলকে তারা টেনে নিয়ে গেছেন প্রায় জয়ের দাঁড়প্রান্তে।

৯০ বলে ১০৮ রানের কার্যকরী ইনিংস খেলে আদিল রাশিদের শিকার হয়ে ফেরেন ম্যাক্সওয়েল, এর ৯ বল পরে ফিরেন আরেক সেঞ্চুরিয়ান এলেক্স ক্যারি। শেষ দিকে ৩ বলে স্টার্কের ঝড়ো ১১ রানে ২ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌছায় সফরকারী অস্ট্রেলিয়া।

এর আগে ইংলিশ কাপ্তান মরগান টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন। তবে ইনিংসের প্রথমেই ধাক্কা খায় স্বাগতিকরা। প্রথম দুই বলেই নেই দুই উইকেট। রয় ও রুট ফেরেন শূন্য রানে। তবে অপর প্রান্তে আগলে ছিলেন বেয়ারস্টো।

মরগান ও বাটলারের সাথে তার জুটি দীর্ঘ না হলেও বিলিংসকে নিয়ে বেয়ারস্টো গড়েছেন ১১৪ রানের জুটি। বিলিংস ৫৭ রানে ফিরলেও বেয়ারস্টো ফিরেছেন ১১২ রান করে। এরপর ক্রিস ওকসের অপরাজিত ৫৭ রানে ভর করে ৭ উইকেটে ৩০২ রানের লড়াকু ইনিংস গড়ে ইংল্যান্ড।

মিচেল মার্স নিয়েছেন ৩ উইকেট; পাশাপাশি স্টার্ক, কামিন্স ও ম্যাক্সওয়েল প্রত্যেকেই নিয়েছেন ২ টি করে উইকেট। দারুণ অলরাউন্ডিং নৈপূন্য দেখিয়ে ম্যাচ ও সিরিজের সেরা হয়েছেন ম্যাক্সওয়েল।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *