মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১১:৫০ অপরাহ্ন

ক্যাম্পাস লাইফ শুরুর আগে যে গুণগুলো থাকা ভালো

  • আপডেট টাইম সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৮.০১ পিএম
যেভাবে কাটাবেন বর্ণিল বিশ্ববিদ্যালয় জীবন

সমীর মুহাম্মদ, চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়: বিশ্ববিদ্যালয় জীবন অধিকাংশ মানুষের লাইফের সেরা অভিজ্ঞতা। এখানে শিক্ষার্থীদের নতুন এক চ্যালেঞ্জিং লাইফের মুখোমুখি হতে হয়, এতে অনেকে হতাশ হয়ে পড়ে বা নতুন পরিবেশের সাথে খাপ খাইয়ে নিতে কষ্ট হয়। তুমি যদি দেশের কোনো পাবলিক-প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পেয়ে থাকো, বা বিদেশে উচ্চশিক্ষার জন্য প্রস্তুতি নাও, তাহলে এইসময়ে নিচের গুণগুলো অর্জন করে নিজেকে মানুষিকভাবে প্রস্তুত রাখতে পারো …….

পছন্দের রান্না শিখে ফেলা: বিশ্ববিদ্যালয়ে হলগুলোতে খাবারের দুই ধরনের ব্যবস্থা থাকে। একটি ডাইনিং আর অন্যটি ক্যানটিন ও ক্যাফেটেরিয়া। খাবারের দাম কিছুটা কম হলেও মান কিন্তু খুবই জঘন্য। ডাল যেন হলুদ পানি আর ভাত হয় মোটা চালের। দেখা যেতে পারে, হলের খাবারগুলোতে তুমি মোটেও অভ্যস্ত নও। এক্ষেত্রে তুমি বাড়ির অভ্যস্ত খাবারটি দারুণ মিস করবে। তাই, এই অবসর সময়ে তুমি তোমার পছন্দের খাবারের রান্না শিখে নিতে পারো।

সোশাল মিডিয়ায় ব্যাচমেটদের সাথে কানেকটিভ থাকা: তুমি যে বিশ্ববিদ্যালয়ে সুযোগ পাও না কেন, ফেসবুকে সেই বিশ্ববিদ্যায়ের বিভিন্ন গ্রুপ পাবে। এবং এমন অনেককেই খুঁজে পাবে, যারা তোমার মত ক্যাম্পাস লাইফ মাত্রই শুরু করবে। তোমার ব্যাচমেটদের সাথে কানেক্ট হয়ে একটি চ্যাটগ্রুপ খুলে আড্ডা দিতে পারো। পরিচিতি বাড়বে। এতে তুমি হলে উঠার শুরুর দিনগুলোতে একাকীত্বে ভুগবে না। প্রথমদিনেই অপরিচিত জায়গায় পরিচিত বন্ধু পাবে।

স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে নেওয়া: হলের উঠার সপ্তাহখানেক আগে তোমরা স্বাস্থ্যপরীক্ষা করে নেওয়া উচিত। বিশেষকরে কোভিড থেকে তুমি কতোটা শঙ্কামুক্ত, তা নিশ্চিত করা যেতে পারে। হলে উঠার পর কোনো অসুস্থতা অনুভব করলে একদমই অবহেলা করবে না, বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে এসে স্বাস্থ্য পরামর্শ নিবে।

ইংরেজিতে নিজেকে আরও প্রস্তুও করা: তুমি হয়ত এতদিন বাংলা মিডিয়ামে পড়াশোনা করেছো। মনে রেখো, উচ্চশিক্ষার জন্য তোমাকে ইংরেজি ভালো আয়ত্তে রাখতে হবে। কারণ, লেকচার আর বইগুলো অধিকন্তু ইংরেজিতে সরবরাহ করা হবে। আর এক্সাম-প্রেজেন্টেশন ইংরেজিতে দিতে পারলে, তুমি অন্যদের থেকে কয়েকগুণ এগিয়ে থাকবে।

ব্যাংকে স্টুডেন্ট একাউন্ট খুলে রাখা: ইউনিভার্সিটি লাইফে তুমি হয়ত অনেক টিউশানির অফার পাবে। বা তোমাকে বাসা থেকে এককালীল মাসিক টাকা পাঠাবে। এক্ষেত্রে কিছু টাকা সঞ্চয়ের জন্য একটা ব্যাংক একাউন্ট তোমাকে হেল্প করবে। টাকা আয় করে কিভাবে সেইভ করতে হয়- এই অভিজ্ঞতা কিন্তু খুব সহজেই রপ্ত করতে পারলে, যা তোমার প্রফেশনার লাইফে অনেক কাজে দিবে। আর হ্যা, স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলা আর সার্ভিস চার্জ কিন্তু একদম ফ্রি! আর কিছু টাকা সঞ্চয়ের পর দূরে একটা ট্রিপ দিতে কোনোমতে মিস করা যাবে না।

সিনিয়রদের সাথে সুসম্পর্ক রাখা: অনেকের হয়ত এবারই প্রথম বাসা থেকে দূরে থাকা হবে। এক্ষেত্রে তুমি বাসার গাইডলাইন থেকে মুক্তজীবন শুরু করবে। তাই, তোমার ইমেডিয়েট কোনো সিনিয়র ভাইয়ার সাথে ভালো সম্পর্ক তৈরি করো, যে তোমাকে বন্ধুসুলভ বড়ভাইয়ের মত হেল্প করবে। আর দুই-তিন ব্যাচ ডিপার্টমেন্ট সিনিয়র ভাইয়াদের সাথে তো যেকোনো বিষয়ে পরামর্শ করবে। কারণ, তুমি যদি কোনো সমস্যায় পড়ো, হলের বড় ভাইয়েরা কিন্তু তোমাকে সাহায্য করতে পারবে, তোমার আব্বু বা বড়ভাই নয়।

নিজের উপর বিশ্বাস রাখা: মেরিট কিংবা পছন্দের সাবজেক্ট না পাওয়ায় কখনো নিজেকে ছোট মনে করবে না। মনে রেখো, তুমি কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন কিছু শেখার জন্য যাচ্ছো, শেখাতে নয়। আর শিখতে কিন্তু কোনো লজ্জা থাকতে নেই।

The Campus Today YouTube Channel

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazar_creativenews_II7
All rights reserved © 2019-20 The Campus Today