মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:০৯ অপরাহ্ন

ক্লাস পরীক্ষার ফাঁকে জমে উঠেছে বালুর মাঠের আড্ডা

  • আপডেট টাইম মঙ্গলবার, ৯ নভেম্বর, ২০২১, ১১.১৮ এএম
ক্লাস পরীক্ষার ফাঁকে জমে উঠেছে বালুর মাঠের আড্ডা
ছবিঃ নাহিদুল ইসলাম সাকিন

সাগর দে, বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি: করোনার ভিতর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি)প্রধান ফটকের সামনে অবস্থিত বালুর মাঠ জনমানবহীন থাকলেও এসব এখন আড্ডার প্রধান কেন্দ্রস্থলে পরিণত হয়েছে। বালুর মাঠের দোকান গুলোয় ক্লাসের মজার ঘটনা থেকে শুরু করে পড়ালেখা, রাজনীতি, খেলাধুলা, বিনোদন, সমসাময়িক ইস্যু নিয়ে আড্ডায় মেতে উঠতে দেখা গেছে।বালুর মাঠ যেন এখন বশেমুরবিপ্রবির প্রাণভোমরা।

বালুর মাঠের বেশির ভাগ দোকানই খাবার দোকান। এ দোকানগুলোতে চা, সিংগারা, ছোলা ভোনা, নুডলস, খিচুড়ি, ভাত, ঠাণ্ডা পানীয় ইত্যাদি বিক্রি হয়। তুলনামূলক ভাবে দাম কম ও খাবার গুলো সুস্বাদু হওয়ায় দোকান গুলোর বিশেষত্ব। বিশেষ করে চা সিংগারা চটপটির দোকান গুলোয় পড়ন্ত বিকেলের শুরুতেই ভিড় জমতে শুরু করে।

বিজ্ঞাপন

শুধু খাবার নয় কয়েকটি ফটোকপির দোকানও আছে । কম দামে ফটোকপি করা যায় বলে দোকানগুলোতে ফটোকপি করতে লাইন পড়ে যায় পরীক্ষার আগে।

গিটারের টুং টাং শব্দ আর দোকানের টেবিলকে তবলা বানিয়ে বেসুরা গলার গান নিয়ে মূহুর্তেই জমে ওঠে গানের আসর।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাদা কালো মিউজিক ক্লাবের ভোকালিস্ট আফসানা আশরাফি বলেন, প্র্যাকটিস এবং সামনের দিনগুলোতে কিভাবে ক্লাবের সুনামকে কিভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায় এসব নিয়ে আলোচনা যখন শেষ হয়, তখনই গিটার-কাহন হাতে আমরা পৌছাে যাই বালুর মাঠে। আর চায়ের সাথে শুরু হয় সাদা কালোর গানের আড্ডা।

তিনি আরো বলেন ,বালুর মাঠের এই আড্ডার মধ্যেই অনুশীলনের মাধ্যমে নিজের প্রতিভা ও দক্ষতাকেও যতোটা সম্ভব বাড়িয়ে নেওয়ার চেষ্টা করি আমরা।

বিজ্ঞাপন

শুধু গান বাজনা খাওয়া দাওয়া নিয়েই বালুর মাঠের বিশেষত্ব নয়। এখানে মন দেয়া-নেয়ার পাশাপাশি খুঁনসুটি, মান-অভিমান, অনাগত দিনের পরিকল্পনার জন্য কিছু কিছু মানুষের কাছে আদর্শ এক স্থান বালুর মাঠ ।

মনের মানুষটির জন্য নিজ হাতে রান্না করা খাবার নিয়ে আসেন অনেকের প্রিয় মানুুষ। এ দৃশ্য দেখে অনেককে আবার হিংসুটে মন্তব্য করতেও দেখা যায়।

বিজ্ঞাপন

বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠনগুলোর রাজনৈতিক চর্চার প্রধান কেন্দ্র স্থল বালুর মাঠ। এখান থেকেই অনেকের রাজনৈতিক চর্চার হাতেখড়ি। চেষ্টা চলে নবীনদের বিভিন্ন ভাইয়ের দলে ভিড়ানোর।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন ছাত্রলীগ কর্মী বলেন, এখানে অনেক শিক্ষার্থীর রাজনৈতিক চর্চার শুরু হয়। সিনিয়র দের থেকে রাজনৈতিক দিক নির্দেশনা ও আসে এই বালুর মাঠ থেকে।

বিজ্ঞাপন

 

আরও পড়ুনঃ স্বর্ণপদক দেবে ইউজিসি, দরখাস্ত আহ্বান

এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সময়-অসময়ে নাশতা, লেকচারশিট ফটোকপি, বন্ধুদের সাথে আড্ডা, বিভিন্ন সংগঠনের মিটিং কোন না কোন অযুহাতেই একবার হলেও ঢুঁ মেরে আসে বালুর মাঠে।

বিজ্ঞাপন

বালুর মাঠের আড্ডা নিয়ে জুবায়ের ফাহিম নামের এক শিক্ষার্থী বলেন, বালুর মাঠে আমাদের আড্ডা বেশ জমজমাট।এখানে শুধু আড্ডা না এখানে পড়ালেখা নিয়েও বেশ আলোচনা হয়।যেন এখানে না আসলে কিছু একটা অসম্পূর্ণ থেকে যায়।

বালুর মাঠের দোকানগুলোর মধ্যে তিন টাকার সিংগারা, হাফিজ ,নজরুল, বাদশা মামার চায়ের দোকান , মায়ের দোয়া হোটেল, সহ মধুমতি লাইব্রেরি দোকানের বেশ নামডাক।

বিজ্ঞাপন

এখানকার ছাত্রছাত্রীদের সাথে বালুর মাঠের দোকানদারদের সম্পর্ক শুধু ক্রেতা-বিক্রেতার নয়। ছাত্রছাত্রীদের সাথে গড়ে উঠেছে তাদের আত্নার সম্পর্ক।

বিজ্ঞাপন

The Campus Today YouTube Channel

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazar_creativenews_II7
All rights reserved © 2019-20 The Campus Today