গাঁজা গাছটি সরিয়ে ফেলেছে ঢাবি কতৃপক্ষ!

গাঁজা গাছটি সরিয়ে ফেলেছে ঢাবি কতৃপক্ষ!

ঢাবি প্রতিনিধি


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের পুকুর পাড়ের ভাইরাল হওয়া গাঁজা গাছটি সরিয়ে ফেলে ঢাবি কর্তৃপক্ষ।

বিষয়টি দ্যা ক্যাম্পাস টুডে কে নিশ্চিত করেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের হল প্রভোস্ট মফিজুর রহমান।

এ বিষয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল প্রভোস্ট মফিজুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, “ভাইরাল হওয়া গাছটি ইতিমধ্যে সরিয়ে ফেলা হয়েছে। এবং এটি আসলে গাঁজা গাছ কিনা সেটি পরীক্ষার জন্য বিশেষজ্ঞের কাছে পাঠানো হয়েছে এখনো রিপোর্ট পাওয়া যায়নি ”

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী দ্যা ক্যাম্পাস টুডে কে বলেন, গাছটি ভাইরাল হওয়ার পর আমরা অবহিত আছি।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশেষজ্ঞ আছে তাদেরকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।আইডেন্টিটিফাই করে আমাদের জানাবে।

তিনি আরও বলেন, যে প্রশ্নটা দেখা দিয়েছে সে বিষয়ে আমরা নিশ্চিত হব। অনেক গাছ থাকা উচিত কিনা সেটা আমরা পরবর্তীতে পর্যবেক্ষণ করব যদি তথ্যের সাথে মেলে তাহলে পরবর্তী পদক্ষেপ হল বিশেষজ্ঞ কমিটি আমাদের তথ্য দিবে।তাদের মতামতের ভিত্তিতে আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করব।এ ধরনের গাছ ক্যাম্পাসে থাকবে এটা কোনোভাবেই কাম্য নয়।

উল্লেখ্য গত রবিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের এক ফেসবুক গ্রুপে এই গাছ নিয়ে পোস্ট করেন ঢাবির এক শিক্ষার্থী। এতে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে।

অভিযোগ পাওয়া গাজার গাছটির উচ্চতা প্রায় ১০ ফুট এবং এটি বঙ্গবন্ধু হলের পুকুর পাড়ে জসীমউদ্দিন হল মাঠের উত্তর-পূর্ব কোণে অবস্থিত বলে একাধিক শিক্ষার্থী নিশ্চিত করেছেন।

অভিযোগ আছে, রাতের ক্যাম্পাসে জসীমউদ্দিন হল মাঠের উত্তর-পূর্ব কোণে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ বহিরাগতরা নিয়মিত গাঁজা সেবন করতেন। ধারণা করা হচ্ছে, গাঁজা সেবনের পরে বীজ যেখানে-সেখানে ফেলায় বৃষ্টির পানির ছোঁয়ায় জন্মেছে এ গাঁজা গাছ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *