মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৪৭ অপরাহ্ন

জাবিতে ‘শিবির’ আখ্যা দিয়ে তিন হিন্দু ছাত্রকে ছাত্রলীগের মারধর

  • আপডেট টাইম বৃহস্পতিবার, ৭ নভেম্বর, ২০১৯, ১.১৮ পিএম

জাবি টুডে: দুর্নীতির অভিযোগে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের অপসারণ দাবিতে আড়াই মাস ধরে চলমান আন্দোলনে ‘শিবির’ আখ্যা দিয়ে ৩ হিন্দু শিক্ষার্থীকে পিটিয়েছে ছাত্রলীগ। ওই হামলার ঘটনায় তিনজন হিন্দু ও দুই মুক্তিযোদ্ধার সন্তানসহ মারিয়াম রশিদ ছন্দা নামের এক ছাত্রী গুরুতর আহত হন।
মারধরের শিকার তিন হিন্দু শিক্ষার্থী হলেন, প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের ৪৭তম ব্যাচের সুদীপ্ত দে, একই ব্যাচের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের অমর্ত্য রায় ও প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের ৪৫তম ব্যাচের শৌমিক বাগচী। হামলার সময় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাদের তিনজনকে ‘শিবির’ বলে মারধর করেছেন বলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ভুক্তভোগীরা।
জানা গেছে, হামলায় আহত ওই তিনজন হিন্দু ধর্মাবলম্বী এবং চলমান ভিসিবিরোধী আন্দোলনের সক্রিয় সদস্য। এদের মধ্যে সুদীপ্ত দে শাখা ছাত্র ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক এবং শৌমিক বাগচী জাহাঙ্গীরনগর থিয়েটারের সাধারণ সম্পাদক। আর অর্মত্য রায় শাখা ছাত্র ইউনিয়নের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত।

আহত অমর্ত্য রায় বলেন, ‘ও শিবির, ওরে মার’ এই কথা বলেই আমার ওপর হামলা চালায় ছাত্রলীগ। তাদের একজন আমার শার্টের কলার ধরেছিল, তখনই আরেকজন আমাকে ধাক্কা দিয়ে মাটিতে ফেলে দেয়। তখন আমি একজন শিক্ষকের গায়ের ওপর গিয়ে পড়ি।
আন্দোলনের সমন্বয়ক প্রফেসর রায়হান রাইন বলেন, যৌক্তিক এই আন্দোলন দমাতে প্রশাসন ও ছাত্রলীগ আন্দোলনকারীদেরকে ‘শিবির’ আখ্যা দিয়ে মিথ্যা ও বানোয়াট অভিযোগ করছেন। এখানে শিবিরের কেউ নেই।
উল্লেখ্য, দুর্নীতির অভিযোগে ভিসিবিরোধী আন্দোলনে মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসভবনের সামনে আন্দোলনকারীদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। ছাত্রলীগের ওই হামলায় পাঁচ নারী শিক্ষার্থীসহ অন্তত ৩০জন আহত হন।

বিজ্ঞাপন
Advertisements

The Campus Today YouTube Channel

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazar_creativenews_II7
All rights reserved © 2019-20 The Campus Today