রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৪:১৭ পূর্বাহ্ন

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী নির্যাতন, তালা ঝুলিয়ে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

  • আপডেট টাইম রবিবার, ১৩ মার্চ, ২০২২, ৯.১৭ পিএম

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি: জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে সঙ্গীত বিভাগের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী সাগর চন্দ্র দে কে নির্যাতনের অভিযোগকে কেন্দ্র করে দোষীর বিচারের দাবীতে বিক্ষোভ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়টির শতাধিক শিক্ষার্থী।

এর আগে গেলো ২৮ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়টির বঙ্গবন্ধু হলের ৩২৪ নং কক্ষে ওয়ালিদ নিহাদ নামের এক শিক্ষার্থীকে নির্যাতনের অভিযোগ উঠে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের উপর জড়িত ৪ শিক্ষার্থী ছাত্রলীগ নেতাকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত শনিবার নতুন করে বিশ্ববিদ্যালয়টির অগ্নিবীণা হলের ২০৪ নং কক্ষে রোলিং চেয়ারে বসিয়ে সাগরকে নির্যাতন করা হয়েছে বলে জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বরাবর আজ রবিবার দুপুরে লিখিত অভিযোগ দিয়ে বিচার চেয়েছে আহত শিক্ষার্থী সাগর চন্দ্র দে। পৃথক আরেক স্মারক লিপিতে আহত শিক্ষার্থীর পক্ষে বিচার চেয়েছে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

নির্যাতনের ঘটনায় চারুকলা বিভাগের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী সৌমিক জাহানের নাম ঊঠে এসেছে। বিচার চেয়ে চিঠি জমার বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত করেছেন পিএস টু ভিসি হাফিজুর রহমান এবং ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর মোহাম্মদ ইরফান আজিজ।

বিজ্ঞাপন

রবিবার সকাল ৯টা থেকে কলা ভবনে তালা ঝুলিয়ে বিক্ষোভ করে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। বেলা সাড়ে ১০টার দিকে কলা ভবন থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে এসে প্রশাসনিক ভবনের নীচে অবস্থান নিয়ে তালা ঝুলিয়ে দেয় ভবনটির মূল ফটকেও।

আন্দোলন প্রত্যাহার করে ক্লাসে ফিরে যেতে আহবান জানান উপস্থিত শিক্ষকরা। সেই সঙ্গে দোষীর শাস্তি হবে এমন আশ্বাস দেন উপস্থিত শিক্ষকরা। এসময় শিক্ষকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, কলা অনুষদের ডিন আহমেদুল বারী, ছাত্র পরামর্শক ড. তপন কুমার সরকার, ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর ইরফান আজিজ, অগ্নিবীণা হলের প্রভোস্ট কল্যাণাংশু নাহা , শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক তুহিনুর রহমান (তুহিন অবন্ত) প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক জালাল উদ্দিন এর আশ্বাসে সোমবার বেলা সাড়ে ১২টা পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচি স্থগিত করে রবিবার সন্ধ্যা ৬টায় জয় বাংলার মোড়ে মোমবাতি প্রজ্বলন ও সোমবার সকালে বিচারের দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। সোমবার বেলা সাড়ে ১২টার মধ্যে যদি দৃশ্যমাণ অগ্রগতি না আসে তবে কঠোর অবস্থানে যাবে বলেও ঘোষণা দেয় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থী সাঈফ বলেন, লোক দেখানো শাস্তি নয় কার্যকর শাস্তি চাই। ইতোমধ্যে আহত শিক্ষার্থীর বক্তব্য পরিবর্তন করাতে একটি পক্ষ জোর করিয়ে বক্তব্য ঘোরাতে চাচ্ছে। চাপ সৃষ্টি করছে তার পরিবারের উপর। আমরা এরকম চলতে থাকলে মেনে নেবো না।

বিজ্ঞাপন

সাগর চন্দ্র দে স্বাক্ষরিত একটি অভিযোগপত্র প্রক্টর অফিসে জমা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর মোহাম্মদ ইরফান আজীজ। এ বিষয়ে তিনি বলেন, আমরা যেটি অভিযোগ পত্রটি পেয়েছি সেটি মূলত রেজিস্ট্রার এবং হল প্রভোস্ট কে উদ্দেশ্য করে দেয়া। তাই এই বিষয়ে আমাদের কিছু করার নেই। তবে গতকাল রাতে হল প্রশাসন থেকে যে তদন্ত কমিটি হয়েছে সেটির কাজ আমরা করছি। দ্রুতই প্রতিবেদন আমরা জমা দিতে পারবো বলে আশা করি।

হল প্রভোস্ট কল্যাণাংশু নাহা বলেন, আমি চিঠি দেখিনি। আগে চিঠির সত্যতা নিশ্চিত করি এবং দেখি তারপর বলা যাবে। তবে হল থেকে যে তদন্ত কমিটি করেছি সেটির কাজ চলছে।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, রবিবার সকাল থেকে কলা অনুষদের ভবনে তালা লাগানো থাকায় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে পারেনি সঙ্গীত,বাংলা ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ এবং চারুকলা বিভাগে। বন্ধ ছিলো পাঠদান কার্যক্রমও।
অন্যদিকে আহত শিক্ষার্থীর বক্তব্য পরিবর্তন করার চেষ্টার ঘটনাটিরও স্বীকার করেছেন হলটির প্রভোস্ট ।

বিজ্ঞাপন

The Campus Today YouTube Channel

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazar_creativenews_II7
All rights reserved © 2019-20 The Campus Today