মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ০৫:৪৪ পূর্বাহ্ন

বশেমুরবিপ্রবিতে হাজারো শিক্ষার্থীর মোমবাতি প্রজ্জ্বলন কর্মসূচি

  • আপডেট টাইম শনিবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২২, ৮.২৫ পিএম

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ ও হামলার প্রতিবাদে এবং গ্রেপ্তারকৃতদের দ্রুত শাস্তির দাবিতে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন কর্মসূচি পালন করেছে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় প্রশাসনিক ভবনের সামনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করেন।

বিজ্ঞাপন

মিছিলটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে আন্দোলনস্থলে গিয়ে শেষ হয়। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের অন্তত দুই হাজার শিক্ষার্থী অংশ নেন।

এদিকে, ছাত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব। গ্রেপ্তাররা প্রত্যেকে অপরাধী চক্রের সদস্য বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

বিজ্ঞাপন

র‌্যাব জানিয়েছে, গত ২৩ ফেব্রুয়ারি রাতে ইজিবাইকে করে ওই শিক্ষার্থী ও তার বন্ধু নবীনবাগ হেলিপ্যাড সংলগ্ন এলাকায় যাচ্ছিলেন। পথে তারা (গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা) ইজিবাইক থামিয়ে তাদের নাম-পরিচয় জিজ্ঞাসা করেন এবং বিভিন্ন ধরনের অশালীন মন্তব্য করতে থাকেন। পরে ওই দুই শিক্ষার্থী ইজিবাইকে করে চলে যাচ্ছিলেন। তবে ওই যুবকেরা আরেকটি ইজিবাইক নিয়ে পেছন থেকে তাদের ধাওয়া করে আটকে ফেলেন।

‘এ সময় পাঁচ যুবকের সঙ্গে ওই শিক্ষার্থী ও তার বন্ধুর বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে বন্ধুকে মারধর করে তাদের জোর করে ঘটনাস্থলের পাশে ঢালু জায়গায় নিয়ে যান। সেখানে যাওয়ার পর পাঁচ যুবকের একজন ফোন দিয়ে আরেকজনকে ডেকে এনে দলবদ্ধ ধর্ষণ করেন।’
শনিবার রাজধানীর কারওয়ান বাজার র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলন করে আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক খন্দকার আল মঈন এসব তথ্য জানান।

বিজ্ঞাপন

দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় গতকাল শুক্রবার রাতে ছয়জনকে জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব।

গ্রেপ্তাররা হলেন- রাকিব মিয়া ওরফে ইমন (২২), পিয়াস ফকির (২৬), প্রদীপ বিশ্বাস (২৪), নাহিদ রায়হান (২৪), মো. হেলাল (২৪) ও তূর্য মোহন্ত (২৬)।

বিজ্ঞাপন

খন্দকার আল মঈন বলেন, ধর্ষণে জড়িত ব্যক্তিরা পেশাদার অপরাধী। তাদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা দলবদ্ধ ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন বলে র‍্যাব দাবি করে।

আল মঈন বলেন, গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা মূলত রাকিবের নেতৃত্বে স্থানীয় একটি অপরাধী চক্রের সদস্য। তারা গোপালগঞ্জ ও আশপাশের এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা। গ্রেপ্তার তূর্য মোহন্ত ছাড়া এই চক্রের অন্য সবাই ৮ থেকে ১০ বছর ধরে নবীনবাগ এলাকার বিভিন্ন স্থানে মাদকসেবন, আড্ডা, জুয়া, চুরি-ছিনতাইসহ বিভিন্ন ধরনের অপকর্মে লিপ্ত ছিলেন। ঘটনার দিনও তারা হেলিপ্যাড এলাকায় মদের আসর বসিয়েছিলেন। তারা বিভিন্ন সময় রাস্তাঘাটে স্কুল-কলেজের ছাত্রীদের উত্ত্যক্ত করতেন বলে জানা গেছে। তাদের বিরুদ্ধে থানায় মামলাও রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

প্রসঙ্গত, গত বুধবার রাতে দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয় ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী। এ ঘটনায় রাতেই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. রাজিউর রহমান গোপালগঞ্জ সদর থানায় অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে একটি মামলা করেন। এ ঘটনায় দুই দিন ধরে সড়ক অবস্থান কর্মসূচি পালন করে আসছে শিক্ষার্থীরা।

বিজ্ঞাপন

The Campus Today YouTube Channel

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazar_creativenews_II7
All rights reserved © 2019-20 The Campus Today