বেরোবি: চেক জালিয়াতির মামলায় অর্থ ও হিসাব শাখার উপ-পরিচালকের ৬ মাসের জেল

বেরোবি: চেক জালিয়াতির মামলায় অর্থ ও হিসাব শাখার উপ-পরিচালকের ৬ মাসের জেল

বেরোবি প্রতিনিধি


চেক জালিয়াতির মামলায় বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) অর্থ ও হিসাব শাখার উপ-পরিচালক রিয়াজুল ইসলামের ছয় মাসের জেল ও সাত লাখ টাকা জরিমানা করেছেন রংপুর আদালত।

সোমবার দুপুরে রংপুর জেলা ও দায়রা জজ-১ আদালতের বিচারক এস এম আহসানুল হক এ রায় দেন।তবে রায় সোমবার ঘোষিত হলেও বিষয়টি জানাজানি হয় বৃহস্পতিবার।

এ ব্যাপারে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী সিরাজ আহমেদ জানান, বেরোবি কর্মকর্তা রিয়াজুল ইসলাম তার ব্যক্তিগত প্রয়োজনে ২০১৮ সালের ৩০ জুলাই সিরাজুল ইসলাম মিঠুর কাছ থেকে সাড়ে ৭ লাখ টাকা ধার নিয়ে দলিল হিসেবে একটি চেক দেন। পরে টাকা পরিশোধে টালবাহানা করতে থাকে এবং তার দেওয়া চেকটি ব্যাংক থেকে ডিজঅনার হয়। এই পরিস্থিতিতে চেক জালিয়াতির মামলা করেন মিঠু। বিজ্ঞ আদালত সাক্ষী প্রমাণ ও শুনানি শেষে রায় দেন। পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

রায়ে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা রিয়াজুল ইসলামকে অর্থদণ্ড ও কারাদণ্ড উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করেন আদালত। রায়ে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা হয়েছে বলে জানান রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী। অপরদিকে রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আবেদন করা হবে বলে জানান আসামি পক্ষের আইনজীবী।

এদিকে মামলার বিষয়টি গোপন রেখে চাকরিতে বহাল ও পদোন্নতি বিষয়টি খতিয়ে দেখে ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. সরিফা সালোয়া ডিনা বলেন, ‘আইনের প্রতি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শতভাগ শ্রদ্ধাশীল। বিষয়টি পর্যালোচনা করে শীঘ্রই যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *