বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ১১:০০ অপরাহ্ন

মাথার চুল বিক্রি করে সন্তানের জন্য দুধ কিনলেন মা

  • আপডেট টাইম বুধবার, ২২ এপ্রিল, ২০২০, ১.১৭ পিএম
মাথার চুল বিক্রি করে সন্তানের জন্য দুধ কিনলেন মা

ক্যাম্পাস টুডে ডেস্ক


সন্তানের খাবারের ব্যবস্থা করতে মাথার চুল কেটে বিক্রি করলেন অসহায় মা । ঘরে রান্না করার মতো একটু খাবারও নেই, দুদিন ধরে না খেয়ে আছেন।

এদিকে ১৮ মাসের শিশুটির খাবারও শেষ। ত্রাণের সন্ধানে গেছেন অনেকের কাছে, কোথাও কেউ সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেননি ।

অবশেষে ২০ এপ্রিল দুপুরে পথেই দেখা হয় এক হকারের (চুল ক্রেতা) সঙ্গে। মাথার চুল দেখিয়ে বিক্রির কথা বললে ৩’শ থেকে ৪শ’ টাকা দেওয়ার আশ্বাস দেয় হকার। কিন্তু মাথার চুল কেটে দেয়ার পর হাতে মাত্র ১৮০ টাকা ধরিয়ে দিয়ে চলে যান। সেই টাকা দিয়েই সন্তানের দুধ ও নিজেদের জন্য চাল কিনে ঘরে ফিরি। করোনা ভাইরাসে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে কথাগুলো বলছিলেন আর চোখ থেকে পানি গড়িয়ে পড়ছিল সাভার পৌর এলাকার ব্যাংক কলোনী মহল্লার বাসিন্দা ও দুই সন্তানের মা সাথী বেগমের।

তিনি আরও জানান, অভাবের কারণে গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহ থেকে চার মাস আগে স্বামী সন্তানসহ মিরপুরে আসেন। পরে সেখান থেকে দেড় মাস আগে সাভারের ব্যাংক কলোনীর নানু মিয়ার টিনশেড বাড়িতে ঘর ভাড়া নেন। এলাকায় নতুন আসায় কেউ চেনে না দেখে খাবারও দেননি।

সাথী বেগম আরও জানান, স্বামী পেশায় দিনমজুর। সাথী নিজেও বাসাবাড়িতে কাজ করতেন। কিন্তু করোনার কারণে বাড়িওয়ালা কাজে যেতে নিষেধ করে দিয়েছেন। স্বামীও কোনও কাজ না পেয়ে বাড়িতে বেকার সময় কাটাচ্ছেন। এ অবস্থায় দুই দিন ধরে ঘরে কোনও খাবার নেই। ১৮ মাসের শিশুটির কোনও খাবার নেই। এলাকায় নতুন, তাই তিনি কাউকেই তেমন চেনেন না। কোথায় ত্রাণ বা খাদ্যসামগ্রী দেয় সেটাও জানা নেই। প্রতিবেশীর কাছ থেকে খবর পেয়ে দুই জায়গায় সহযোগিতার জন্য গিয়েছিলেন। তবে তাকে চেনেন না বলে ত্রাণ না পাননি, খালি হাতেই ফিরেছেন ঘরে। এমন সময় এক হকারের সঙ্গে পরিচয় হয়। তার কথায় ৪শ’ টাকা পাবেন শুনে মাথার চুল কেটে দিয়ে দেন, তবে সেখানেও তিনি ঠকে যান। হকার মাত্র ১৮০ টাকা হাতে ধরিয়ে দিয়ে চলে যায়। পরে ওই টাকা দিয়ে শিশুর জন্য দুধ ও এক কেজি চাল কিনেছেন।

সাথী বেগমের প্রতিবেশী রিকশাচালক সুমন বলেন, দেশে লকডাউনের পর সড়কে কোনও যাত্রী নেই। আয়-উপার্জন না থাকায় কোনোভাবে জীবন নিয়ে বেঁচে আছি। সাথীর অসহায় অবস্থার কথা জানি, কিন্তু সহযোগিতা করার সামর্থ্য নেই।

এ ব্যাপারে সাভার উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ বলেন, বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখজনক। খুব দ্রুত ওই পরিবারের কাছে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছানো হবে।

সাভার পৌর মেয়র আব্দুল গনি বলেন, পৌর এলাকায় অনেক জায়গায় ত্রাণ বিতরণ চলছে। তবে ওই নারীর চুল কেটে বিক্রি করার বিষয়ে জানা নেই।

The Campus Today YouTube Channel

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazar_creativenews_II7
All rights reserved © 2019-20 The Campus Today