মেয়েকে উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় বৃদ্ধ বাবাকে পিটিয়ে আহত করেছে বখাটেরা

মেয়েকে উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় বৃদ্ধ বাবাকে পিটিয়ে আহত করেছে বখাটেরা

ক্যাম্পাস টুডে ডেস্ক

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে মেয়েকে উত্ত্যক্ত ও ‘অপহরণের’ প্রতিবাদ করায় বৃদ্ধ বাবাকে পিটিয়ে আহত করেছে বখাটেরা। গত সোমবার রাতে আনোয়ার আলী (৬৫) নামে ওই ব্যক্তিকে পাইলগাঁও ইউনিয়নের আলীগঞ্জ বাজার কলোনির ভাড়া বাসা থেকে ধরে নিয়ে গিয়ে রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করে পার্শ্ববর্তী গুতগাঁও গ্রামের শামীম আহমদ ও তার লোকজন। এ ঘটনায় ওইদিন রাতেই অভিযান চালিয়ে গুতগাঁও গ্রাম থেকে চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তাররা হলো লিটন মিয়া (২৫), আকাই মিয়া (২৮), ইলিয়াছ মিয়া (২৭) ও আলম মিয়া (৩০)। তবে পলাতক মূল অভিযুক্ত শামীম।

এদিকে নিখোঁজের ছয় দিন পর গতকাল মঙ্গলবার সকালে হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ থেকে নির্যাতনের শিকার আনোয়ার আলীর স্বামী পরিত্যক্তা মেয়েকে পুলিশ উদ্ধার করেছে বলে জানিয়েছেন জগন্নাথপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মুসলেহ উদ্দিন আহমেদ।

মারধরের শিকার আনোয়ার আলী জানান, হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার রাজনগর গ্রামের এক ব্যক্তির বাড়িতে গৃহপরিচারিকার কাজ করত তার মেয়ে। সেখান থেকে গত ৩০ সেপ্টেম্বর তার মেয়েকে তুলে নিয়ে যায় শামীম ও তার লোকজন। এরপর থেকে মেয়ের কোনো খোঁজ পাচ্ছিলেন না।

আনোয়ার আলী বলেন, সাত বছর আগে নবীগঞ্জের রাজাবাজ গ্রামের কবির মিয়ার সঙ্গে মেয়ের বিয়ে দিয়েছিলাম। দুই বছর আগে কবির মিয়া মেয়েকে তালাক দেয়। এরপর থেকে ছেলে সন্তানকে নিয়ে আমার বাড়িতে অবস্থান করছিল। তখন থেকে আমার মেয়েকে উত্ত্যক্ত করত পার্শ্ববর্তী গুতগাঁও গ্রামের শামীম। রাজনগর গ্রাম থেকে ‘অপহরণের’ পর গত সোমবার রাতে আমি শামীমের কাছে মেয়ের খোঁজ জানতে চাই। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে তার লোকজন আমাকে জোর করে শামীমের বাড়িতে ধরে নিয়ে গিয়ে রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে স্থানীয়রা আমাকে উদ্ধার করে।

জগন্নাথপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মুসলেহ উদ্দিন আহমেদ দেশ রূপান্তরকে বলেন, স্বামী পরিত্যক্তার বাবাকে নির্যাতনের ঘটনায় চারজনকে আটক করা হয়েছে। আটকদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। আর মূল অভিযুক্ত শামীমকে ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *