রাবি প্রশাসনের ‘দুর্নীতি’: ইউজিসি’র তদন্ত কার্যক্রম বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিচালনার দাবি

রাবি প্রশাসনের ‘দুর্নীতি’: ইউজিসি’র তদন্ত কার্যক্রম বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিচালনার দাবি

রাবি প্রতিনিধি


রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) প্রশাসনের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) গঠিত তদন্ত কমিটিকে ঘটনাস্থলে (বিশ্ববিদ্যালয়) এসে তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনার দাবি জানিয়েছে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ।

বুধবার অধ্যাপক ড. এম মুজিবুর রহমান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ দাবি জানানো হয়েছে।

লিখিত বিজ্ঞপ্তিতে তাঁরা বলেছেন- ‘রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের তদন্ত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে মঞ্জুরী কমিশনে গণশুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

প্রশাসনের অনিয়মের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি এই বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনা করবেন এটাই প্রত্যাশিত। কিন্তু ইউজিসি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে যা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি নষ্ট করছে এবং ৭৩’র অ্যাক্ট’র পরিপন্থি বলে মনে করেন শিক্ষক সমাজ।

এর আগে বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছিল, কিন্তু তাদের ক্ষেত্রে এ ধরণের গণশুনানির প্রয়োজন হয় নি। তাহলে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে এ ধরণের ঘটনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানহানি বলে মনে করছেন শিক্ষক সমাজ।’

লিখিত বক্তব্যে এ ঘটনার তদন্ত কার্যক্রম ঘটনাস্থলে (বিশ্ববিদ্যালয়ে) পরিচালনার দাবি জানান প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ।

উল্লেখ্য রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) উপাচার্য অধ্যাপক আব্দুস সোবহান ও উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়ার বিরুদ্ধে শিক্ষক নিয়োগে অনিয়ম, স্বজনপ্রীতি ও নিয়োগ বাণিজ্যসহ বেশ কয়েকটি বিষয়ে শিক্ষকদের একাংশের দেয়া অভিযোগের শুনানি করতে যাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি)।

আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর ইউজিসি অডিটোরিয়ামে এই শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে অভিযোগকারী ও অভিযুক্তদের উপস্থিত থাকার নির্দেশনা দিয়েছে ইউজিসি। সেদিন বিকেল ৩টায় অভিযোগ ও দলিলপত্রসহ সংশ্লিষ্টদের সেখানে উপস্থিত হওয়ার জন্য বলা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *