শহীদ মিনারে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করে অন্ধকারে অনিয়মের বিরুদ্ধে মৌন প্রতিবাদ

বশেমুরবিপ্রবি টুডেঃ গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োটেকনোলজি এন্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং (বিজিই) বিভাগের চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল জোবায়ের এর পদত্যাগে দাবিতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মোমবাতি প্রজ্বলন করে অন্ধকারে অনিয়মের বিরুদ্ধে মৌন প্রতিবাদ করেছে বিভাগটির শিক্ষার্থীরা। চতুর্থ দিনের মত তারা আন্দোলন অব্যাহত রেখেছে।

শুক্রবার (২০ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে চেয়ারম্যানের পদত্যাগের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মোমবাতি প্রজ্বলন করে অন্ধকারে অনিয়মের বিরুদ্ধে মৌন প্রতিবাদ করেছেন তারা।

এসময় শিক্ষার্থীরা আবদুল্লাহ আল জোবায়ের এর বিরুদ্ধে অকারণে কারণ দর্শানো নোটিশ প্রদান, শিক্ষার্থীদের বাক-স্বাধীনতা হরণ, মানসিকভাবে হয়রানি, ব্যক্তিগত আক্রোশ থেকে পরীক্ষার ফলাফলের উপর প্রভাব, ল্যাব প্রতিষ্ঠায় ব্যর্থতা, নৈতিক স্থলনসহ মোট আটটি অভিযোগ তুলে ধরেন।

অভিযুক্ত শিক্ষক আব্দুল্লাহ আল জোবায়ের সকল অভিযোগের সাথে দ্বিমত পোষণ করে জানিয়েছেন, “বিভিন্ন সময়ে যৌক্তিক কারণে শিক্ষার্থীদের সতর্ক করার উদ্দেশ্যে আমরা শিক্ষার্থীদের শোকজ নোটিশ প্রদান করেছে তবে এখন পর্যন্ত শোকজ নোটিশের প্রেক্ষিতে কাউকে শাস্তি দেয়া হয়নি।” ল্যাবের বিষয়ে তিনি জানান, “আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়টি নতুন বিশ্ববিদ্যালয় হওয়ায় কিছু সীমাবদ্ধতার কারণে ইচ্ছে থাকা সত্বেও অনেক কাজ করা সম্ভব হয়নি। তবে আমরা সর্বদা চেষ্টা করেছি শিক্ষার্থীদের সমস্যা চিহ্নিত করে সে ব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার।”

ব্যক্তিগত আক্রোশের জেরে ফলাফলের ওপর প্রভাবের বিষয়ে এই শিক্ষক বলেন, “একটি উত্তরপত্র দুজন শিক্ষক মূল্যায়ন করেন এবং দুজনের প্রদানকৃত নাম্বারে অতিরিক্ত পার্থক্য থাকলে সেটি তৃতীয় শিক্ষকের নিকট প্রেরণ করা হয় তাই কোনো শিক্ষকের পক্ষেই ফলাফল প্রভাবিত করা সম্ভব নয়।”

এদিকে এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের চলতি উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ শাহজাহান জানিয়েছেন, “আমরা বিজিই শিক্ষার্থীদের অভিযোগগুলো সম্পর্কে জানতে পেরেছি এবং তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে”।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ

Leave a Comment