সুবর্ণচরের সেই পারুলের পাশে ছাত্র অধিকার পরিষদ

ক্যাম্পাস টুডে ডেস্ক


নোয়াখালীর সুবর্ণচরে আলোচিত সেই পারুল বেগমকে খাদ্য সামগ্রী প্রদান করেন নোয়াখালী জেলা ছাত্র অধিকার পরিষদ। পারুল বেগমের স্বামী সিনএনজি চালক করোনা ভাইরাসে ঘরবন্দী হয়ে যাওয়ায় তাদের একমাত্র উপার্জন বন্ধ হয়ে যায়। ফলে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে হিমশিম খাচ্ছে পারুলের পরিবার।

আজ শনিবার (৪ এপ্রিল) ছাত্র অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় যুগ্ম আহবায়ক ও নোয়াখালী জেলার আহবায়ক আব্দুজ জাহেরে নেতৃত্বে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে পারুলের পরিবারের কাছে ছুটে যান সংগঠনটির নেতৃবৃন্দ। এই সময় তারা পারুলের পরিবারকে চাউল ১৫ কেজি, ডাল ১ কেজি, আলু ৫ কেজি, পেয়াজ ৩ কেজি, রসুন ১ কেজি, তেল ২ লিটার, আটা ২ কেজি এবং নগদ ১০০০ টাকা তুলে দেন।

খাদ্য সামগ্রী বিষয়ে পারুল বেগমের অনুভূতি জানতে চাইলে তিনি বলেন, ছাত্র অধিকার পরিষদের কাছে আমি বরাবরই ঋণী। তারা ঔ ঘটনার পর থেকে আমাকে মানসিক এবং আর্থিকভাবে সবসময় সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। আমার স্বামী পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী। করোনা ভাইরাসে ঘরবন্দী হওয়ায় আমাদের কোন রকম খেয়েই দিনরাত কাটাতে হচ্ছে।

এমতাবস্থায় কারো সহযোগিতা না পাওয়ায় আমরা খুবই চিন্তিত। কিন্তু ছাত্র অধিকার পরিষদ আমাদের যে সহযোগিতা করেছেন কিছু বলার মতো আমার কোন ভাষা নেই। যারা এই করোনা ভাইরাসে কর্মহীন হয়ে গেছে সমাজের বিত্তবানদের তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য অনুরোধ করছি।

উল্লেখ্য,একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রাতে স্বামী-সন্তানদের বেঁধে রেখে পারুলকে (৪০) মারধর ও গণধর্ষণ করা হয়। নির্যাতিত নারীর অভিযোগ ছিল, ভোটকেন্দ্রে থাকা ব্যক্তিদের পছন্দের প্রতীকে ভোট না দেওয়ার জের ধরে ওই হামলা ও ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ

Leave a Comment