অবশেষে পরিচয় মিলল হাসপাতালে রক্তাক্ত শিশুটির

সারাদেশ টুডেঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় দুই ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষের দুর্ঘটনার কবলে আহত হয়ে মা ও দাদির খোঁজে হাসপাতালে অঝরে কাঁদছে শিশুটি। কিন্তু ভয়ে বলতে পারছে না নিজের নাম পরিচয়।

মঙ্গলবার ভোর ৪টার দিকে সিলেট থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী আন্তঃনগর উদয়ন এক্সপ্রেস ও চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী তূর্ণা নিশীথা এক্সপ্রেস ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৬ জনের প্রাণহানি হয়েছে। আহত হয়েছে অর্ধশতাধিক। এখনো চলছে উদ্ধার অভিযান। দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত অনেকেই এখন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আহতদের মধ্যে হাসপাতালে শুয়ে কাঁদতে দেখা যায় শিশু নাইমাকে।

নাইমা এতটাই ভয়ে ছিল যে সে তার নাম পর্যন্ত বলতে পারছিল না। পরে এ নিয়ে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশের পর তার অভিভাবকের সন্ধান পাওয়া যায়।

শিশুটির চাচা মানিক জানিয়েছেন, “তিনি ঢাকা থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উদ্দেশে রওনা হয়েছেন। শিশু নাইমাকে নিয়ে সিলেট থেকে তার মা কাকলী ও দাদী উদয়ন এক্সপ্রেসে করে চাঁদপুরে ফিরছিলেন। পথে দুর্ঘটনার শিকার হয় তাদের ট্রেন।

নাইমার বাবা মাইনুদ্দিনও দুর্ঘটনার খবর পেয়ে চাঁদপুর থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রওনা দিয়েছেন বলে জানিয়ে শিশুটির চাচা।

তিনি আরও জানান, তারা কেউই নাইমার মায়ের মোবাইলে যোগাযোগ করতে পারছেন না। তারা কী অবস্থায় আছেন কিছুই জানতে পারছেন না।

দ্য ক্যাম্পাস টুডে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ

Leave a Comment