শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১, ০১:৫২ পূর্বাহ্ন

ইনস্টিটিউটের অবস্থান কর্মসূচি স্থগিত, সমস্যা সমাধান না হওয়া পর্যন্ত ক্লাস পরীক্ষা বর্জন

  • আপডেট টাইম বুধবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১, ৩.২৫ পিএম

 

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ (সিএসই) এবং ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের সাথে একীভূত হওয়ার দাবি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্ভুক্ত শেখ হাসিনা আইসিটি ইন্সটিটিউটের শিক্ষার্থীদের অবস্থান কর্মসূচি স্থগিত করেছে।

আজ (বুধবার) বেলা ১২টায় প্রশাসনিক ভবনের সম্মুখে শেখ হাসিনা ইনস্টিটিউট অফ আইসিটি এর ২০১৮- ১৯ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত প্রেস ব্রিফিং এই ঘোষণা দেয়া হয়।

এই সময়ে শিক্ষার্থীরা বলেন,মাননীয় ভিসি স্যারের আশ্বাসে এবং প্রশাসনের প্রতি আস্থা রেখে একাডেমিক কাউন্সিল না হওয়া পযর্ন্ত অবস্থান কর্মসূচি স্থগিত করা হয়েছে।কিন্তু সমস্যা সমাধান না হওয়া পর্যন্ত সকল ক্লাস এবং পরীক্ষা বর্জন করা হবে।

শিক্ষার্থীরা আরো জানায়, ২০১৮-১৯শিক্ষাবর্ষে ইনস্টিটিউটের সিএসই , ইইই এবং ইটিই থাকলেও তৎকালীন ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন বি.কে বালা এবং ইটিই বিভাগের ডিন অধ্যাপক শাহজাহান ইটিই বিভাগকে অনুষদের ইটিই বিভাগের সাথে একীভূত করে। এর পরবর্তী ২ বছরে সিএসসি এবং ইইই বিভাগের শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হয়ে কয়েকবার স্মারকলিপি, আবেদনপত্র প্রশাসন বরাবর জমা দিলেও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সুস্পষ্ট কোনো সমাধান দেয়নি। বরং ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি দেওয়া সত্ত্বেও ইনস্টিটিউট এর পরবর্তী ব্যাচ ভর্তি বন্ধ করে দেয়।

শিক্ষার্থীরা আরো জানায়, এর প্রেক্ষিতে ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ৭ দফা দাবিতে পরবর্তী ব্যাচ ভর্তিসহ সকল সমস্যা সমাধান করে ইনস্টিটিউট চলমান রাখার জন্য আন্দোলন করলে তৎকালীন প্রশাসন আশ্বাস দেয় স্থায়ী ভিসি আসলে সি এস সি এবং ইইই বিভাগকে অনুষদের স্ব-স্ব বিভাগে একীভূত করা হবে। এ আশ্বাসের ভিত্তিতে আন্দোলন বন্ধ করলেও স্থায়ী ভিসি আসা সত্ত্বেও সমস্যার কোনো সমাধান হয়নি।

এর পরিপ্রেক্ষিতে ২০২০ সালের ২৮ ডিসেম্বর সমস্যা সমাধানের জন্য অবস্থান কর্মসূচির মাধ্যমে আন্দোলন নামে শিক্ষার্থীরা। এ সময় মাননীয় ভিসি স্যার জানান, পরবর্তীতে ব্যাচ ভর্তি চালু রাখবেন এবং সার্বিক সমস্যা সমাধানের জন্য একাডেমিক কাউন্সিলের জন্য অপেক্ষা করতে হবে।

 

প্রসঙ্গত, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্যের খোন্দকার নাসিরউদ্দিনের অদূরদর্শীতায় মাদারিপুরের শিবচরে ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ থেকে অস্থায়ী ভাবে তৈরি হয় শেখ হাসিনা আইসিটি ইনিস্টিটিউট। যেখানে ইটিই ইইই এবং সিএসই বিভাগে প্রায় ১০০ জন শিক্ষার্থীকে ভর্তি করানো হয়। এর মধ্যে ইটিইি বিভাগের ৬ জনকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইটিইি বিভাগে একীভূতকরা হলেও বাকি দুই বিভাগের শিক্ষার্থীদের একীভূতকরা হয়নি।

The Campus Today YouTube Channel

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
themesbazar_creativenews_II7
All rights reserved © 2019-20 The Campus Today