এক মাসের শিডিউলে পরীক্ষা দিতে চাই না এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা

এক মাসের শিডিউলে পরীক্ষা দিতে চাই না এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা

ক্যাম্পাস টুডে ডেস্ক


এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে নেয়ার কথা ভাবছে সরকার। পূর্ণ নম্বর কমিয়ে সব বিষয়েই পরীক্ষা নেয়ার চিন্তা আছে। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করে আর দৈনিক একটিমাত্র বিষয়ে পরীক্ষা রাখার চিন্তা করা হচ্ছে। সরকারের উচ্চপর্যায়ে আলোচনা শেষে এ ব্যাপারে বোর্ডগুলোকে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা দেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি সাংবাদিকদের জানান, পরীক্ষা ছাড়া মূল্যায়ন করা হলে এই ব্যাচ ভবিষ্যতে প্রশ্নের মুখে পড়তে পারে। তাই পরীক্ষাই নেয়া হবে। বিস্তারিত পরিকল্পনা আগামী সোম-মঙ্গলবারের মধ্যে প্রকাশ করা হবে। এসময় তিনি আরও বলেন, এইচএসসি পরীক্ষা শুরুর আগে দুই সপ্তাহ নয়, অন্তত চার সপ্তাহ সময় দিব আমরা।

এদিকে, শিক্ষামন্ত্রীর এই বক্তব্যের সাথে দ্বিমত পোষণ করছেন এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা। তাদের মতে, এক মাসের শিডিউলে তারা পরীক্ষা দিতে চাই না। কেননা, এখানে অনেক কিছু জড়িত রয়েছে বলে দাবি তাদের।

৪ অক্টোবর ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলায় এক ‘দূর বন্ধনে’ এসব কথা বলেন তারা। উপজেলার ত্রিশাল প্রেসক্লাবের সামনে এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। এতে উপজেলার এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন।

এ সময় বক্তারা বলেন, করোনার কারণে আমাদের ৬ মাস ক্ষতি হয়েছে। আমরা আরও কিছুদিন অপেক্ষা করতে চাই। এই করোনার মধ্যে আমরা পরীক্ষা দিতে চাই না। কেননা পরীক্ষা দিতে গিয়ে আমরা করোনায় আক্রান্ত হতে চাই না।

কর্মসূচিতে তারা আরও বলেন, ঢাকা থেকে অনেক পরীক্ষার্থী গ্রামে চলে গেছেন। আর যারা আছেন, তারা ৬ মাসের মেসভাড়া দিয়েছে। এখন আমাদের অনেকেই বাধ্য হয়ে মেস ছেড়ে দিতে হচ্ছে। তাই এখন আমরা এক মাসের শিডিউলে পরীক্ষা দিতে চাচ্ছি না। কারণ এখানে অনেক কিছুই জড়িত আছে। এরমধ্যে আর্থিক বিষয়টি অন্যতম। করোনার কারণে আমাদের প্রস্তুতি অনেকটা নষ্ট হয়ে গেছে। এখন হঠাৎ করে আমরা করোনার মধ্যে পরীক্ষা দিতে চাচ্ছি না।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ

Leave a Comment