প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীকে শোকজ

প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীকে শোকজ

ববি টুডে


সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরিবারের অন্যতম সদস্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার ছোটবোন শেখ রেহানাকে নিয়ে আপত্তিকর স্ট্যাটাস দেয়ার অভিযোগে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) এক শিক্ষার্থীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে।

ওই শিক্ষার্থীর নাম মো. খালিদ হাসান । খালিদ বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের ২০১৪-১৫ সেশনের শিক্ষার্থী। রবিবার (১ নভেম্বর) তাকে শোকজ নোটিশ দেয়া হয় ।

নোটিশে বলা হয়েছে, এ অভিযোগের ভিত্তিতে কেন তাঁর বিরুদ্ধে কেন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না, আগামী তিন কর্ম দিবসের মধ্যে তা জানাতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে খালিদ হাসানকে। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

আজ রবিবার সন্ধ্যায় এসব বিষয় নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড.সুব্রত কুমার দাশ। তিনি বলেন, অভিযুক্ত শিক্ষার্থীকে আগামী তিন কর্মদিবসের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডির কাছে শোকজের জবাব দিতে বলা হয়েছে।\

প্রক্টর আরও জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. খোরশেদ আলমকে প্রধান করে গঠিত তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি অভিযোগের তদন্ত করবে। কমিটির অপর ২ জন হলেন- কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক মো. মনজুর আহমেদ এবং আইন বিভাগের শিক্ষক সুপ্রভাত হালদার।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবার এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে নানা কটূক্তি মূলক প্রচারণা চালানোর অভিযোগে গত বৃহস্পতিবার খালিদের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন কয়েকজন শিক্ষার্থী।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ২৫ সেপ্টেম্ববর খালিদ এমকেএইচএস নামের ফেসবুক আইডি থেকে একটি স্ট্যাটাস দেন । স্টাট্যাসে তিনি লিখেছেন, ‘হিটলার ৬০ লাখ ইহুদি হত্যা করার পর কিছু সংখ্যক জীবিত ছিল। বাকিটা ইজরায়েলের দিকে তাকালেই বুঝবেন। মোস্তাক-ডালিমরা শেখ পরিবারের সদস্যদের হত্যার পর দু’জন জীবিত ছিল। বাকিটা বাংলাদেশের দিকে তাকালেই বুঝতে পারবেন।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ

Leave a Comment