প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ চান ম্যাটস শিক্ষার্থীরা

এক বছরের ইন্টার্নশিপসহ অসংগতিপূর্ণ কোর্স কারিকুলাম সংশোধনসহ চার দফা দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে সাধারণ ম্যাটস শিক্ষার্থী ঐক্য পরিষদ। অবস্থান কর্মসূচির দ্বিতীয় দিনে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ চেয়েছেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।

সোমবার (২৫ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি চলাকালে এ দাবি জানান ম্যাটস শিক্ষার্থীরা।

তাদের অন্য দাবিগুলো হলো– বঙ্গবন্ধুর ১ম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা অনুযায়ী উচ্চশিক্ষার সুযোগ, এলাইড হেলথ শিক্ষা বোর্ড বাতিল করে ‘মেডিকেল এডুকেশন বোর্ড অব বাংলাদেশ’ নামে বোর্ড গঠন করা এবং অনতিবিলম্বে শূন্য পদে নিয়োগ (কমিউনিটি ক্লিনিকসহ সব সরকারি ও বেসরকারি হসপিটাল/ক্লিনিকে পাস করা ডিএমএফদের পদ সৃষ্টি করে পদায়ন করা)।

অবস্থান কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া সাধারণ ম্যাটস শিক্ষার্থী ঐক্য পরিষদের প্রধান উপদেষ্টা (মিডিয়া) মো. মেহেদী হাসান বলেন, চার দফা দাবিতে গত ৪০ দিনের বেশি সময় ধরে আন্দোলন করে যাচ্ছি। দেশের বিভিন্ন জেলা ও হাসপাতালে আন্দোলন করেছি। কিন্তু কোনোভাবেই সমস্যার সুরাহা হচ্ছে না।

তিনি বলেন, এই মুহূর্তে আমাদের এক দাবি, আমরা প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ চাই। প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘের সম্মেলন শেষ করে এলেই আমরা আমাদের দাবিগুলো সরাসরি তার কাছে বলতে চাই।

এর আগে গত ১৬ আগস্ট চার দফা দাবিতে সারা দেশের সরকারি ও বেসরকারি ম্যাটসের শিক্ষার্থীরা শান্তিপূর্ণভাবে অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস, পরীক্ষা বর্জন, ছাত্র ধর্মঘট, সরকারি ম্যাটসের প্রশাসনিক ভবনে তালাবদ্ধ, স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সামনে অবস্থান, জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে আসছে।

মেডিকেল অ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেনিং স্কুল (ম্যাটস) বাংলাদেশ রাষ্ট্রীয় চিকিৎসা অনুষদ কর্তৃক পরিচালিত এবং বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিল (বিএমডিসি) কর্তৃক নিবন্ধিত। বর্তমানে ম্যাটসের ১৭টি সরকারি ও দুই শতাধিক বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে প্রায় পঞ্চাশ হাজার শিক্ষার্থী অধ্যায়নরত রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ

Leave a Comment