বশেমুরবিপ্রবিতে ছাত্র দ্বারা শিক্ষক নির্যাতিত!

বশেমুরবিপ্রবি টুডেঃ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে বিতর্কিত ভিসি অধ্যাপক ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিন পদত্যাগের পরে শিক্ষার্থীদের দ্বারা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকদের মানসিক নির্যাতন ও বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকির অভিযোগ উঠেছে।

এদিকে গত ২৯ শে অক্টোবর বিকাল ৩টার দিকে আইন বিভাগের ডীন মোঃ আবদুল কুদ্দুস মিয়াকে নির্যাতন করা হয়েছে। পরের দিন ৩০ অক্টোবর রেজিস্ট্রার বরাবর লিখিত এক পত্রে তিনি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রেজিস্ট্রার বরাবর লিখিত পত্র ও বিশেষ প্রতিনিধির কাছ থেকে জানা যায়, আবদুল কুদ্দুস মিয়ার অফিস কক্ষে আইন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র হাসান আলি, মোহাম্মদ বরকত উল্লাহ নাইম, মোহাম্মাদ এস এম আবদুল্লাহ কাফি, মোঃ সোলায়মান রাব্বি সহ ৭/৮ জন ছাত্র ২০৮ নং রুমে প্রবেশ করে রুমের দরজা-জানালা বন্ধ করে শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন এবং ভয়ভীতি প্রদর্শন করে এক প্রকার জিম্মি করে ডীন পদ থেকে পদত্যাগের জন্য চাপ সৃষ্টি করে। পদত্যাগের আইনগত ব্যখ্যা প্রদান করতে গেলে শিক্ষক আবদুল কুদ্দুস মিয়াকে নিজ বিভাগের ছাত্ররা আরও বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে।

ওই দিনই বিষয়টি আইন বিভাগের শিক্ষক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. রাজিউর রহমানের মাধ্যমে সশরীরে বিশ্ববিদ্যালয়ের চলতি ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ শাহজাহানকে অবহিত করা হলে তিনি বিষয়টি শুনে দুঃখ প্রকাশ করেন কিন্তু শিক্ষক নির্যাতনকারী ছাত্রদের বিচারের ব্যবস্থা নেওয়ার ব্যাপারে অপারগতা প্রকাশ করেন। অতঃপর ছাত্র কতৃক নির্যাতনের স্বীকার শিক্ষক আবদুল কুদ্দুস মিয়া বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের উদাসীনতায় নিজের জীবনের নিরাপত্তা শংকা থাকায় ১০ দিনের নৈমিত্তিক ছুটি দাখিল করে ক্যাম্পাস ত্যাগ করেন।

উল্লেখ্য, আবদুল কুদ্দুস মিয়া গত ০১/০৩/২০১৯ তারিখ থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগে চুক্তি ভিত্তিক শিক্ষক হিসেবে নিয়োজিত আছেন।

দ্য ক্যাম্পাস টুডে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ

Leave a Comment