‘মুই তোমার এমপি বাহে, তোমাঘরে জন্য মুই খাবার আনচু’

সারাদেশ টুডে


“মুই তোমার এমপি বাহে, তোমাঘরে জন্য মুই খাবার আনচু। এ্যালা নিয়ে খাবার খায়ে আবার আরাম করি তোমারা ঘুমাও।” দেশের দুর্যোগকালে ভ্যানে করে দিন বা রাতের আধারে অসহায় মানুষের ঘরে ঘরে এভাবেই খাবার পৌঁচ্ছে দিচ্ছেন দিনাজপুর-৬ আসনের সাংসদ সদস্য (এমপি) শিবলী সাদিক।

করোনার তাণ্ডবে সারাবিশ্ব এখন স্থবির। সেই সাথে বাংলাদেশে বিপাকে পড়েছেন খেটে খাওয়া মানুষ। দেশের এমন ভয়াবহ পরিস্থিতিতে কর্মহীন থাকা অসহায় মানুষের খোঁজ নিয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য সহায়তা দিচ্ছেন এমপি শিবলী সাদিক।

জানা যায়, ব্যক্তিগত তহবিল থেকে হিলি হাকিমপুর, বিরামপুর, নবাবগন্জ ও ঘোড়াঘাট উপজেলায় ৪০ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা করছেন এই মানবতার ফেরিওয়ালা এবং সংসদ সদস্য।

দুর্যোগকালে খাবার পেয়ে এলাকার আদিবাসী গ্রামের স্বনালী দির্গ্যা জানান, “মুই ভাববারই পারনাই এমপি মোর বাড়িত আসি খাবার দিবে। (আমি ভাবতেই পারিনি এমপি আমার বাড়িতে এসে খাবার দিবেন)। করোনার ভয়ে হামরা ঘর থেকে বাইরত যাবার পারছি না। (করোনার ভয়ে আমরা ঘরের বাহিরে যেতে পারছি না)। ছোয়ালগুলাও কান্দোচে।( সন্তানগুলো কাদতেছে)। চাল,ডাল,লবণ পেয়ে ভালোই হইলো। ইশ্বর তোমাঘরে আরো বড় মানুষ করুক।’(সৃষ্টিকর্তা আপনারে আরো বড় মনের মানুষ করুক)।

সাংসদ সদস্য শিবলী সাদিক বলেন, ‘আমি খোঁজ নিয়েছি। অনেক মানুষ আছে অভাবের কারণে তাদের উঁনুন জ্বলেনি। ঘরের বাইরে করোনা আর ভেতরে ক্ষুধা। অনেকের শিশুরা ছিল অভুক্ত। তাদের হাতে কিছু খাবার তুলে দিতে পেরে নিজের ভালো লাগছে। অনেক মানুষ আছে খাবার পেয়ে একটা আনন্দের হাসি সারা জীবনে মনে রাখর মতো।’

সাংসদ সদস্য আরো জানান, ‘আমি যখন খাবার নিয়ে গ্রামে যাই তখন গ্রামের মানুষগুলো অনেকেই ঘুমিয়ে ছিল। করোনার বিস্তারে কর্মহীন মানুষগুলো ঘরে বন্দি তখন তাদের করোনার চেয়েও ভয়াবহ হয় ক্ষুধা। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে রাতের আধারে তাদের খাবারে পৌঁছে দেবার চেষ্টা করেছি।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ

Leave a Comment