সেকশন অফিসার যেভাবে বিভাগের চেয়ারম্যান হলেন সাবেক ভিসির ভাতিজা

বশেমুরবিপ্রবি টুডেঃ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) আন্তর্জাতিক সম্পর্ক (আইআর) বিভাগের চেয়ারম্যানকে অপসারণের দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি করেছেন ওই বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

রবিবার (১৩ অক্টোবর) সকাল ১০ টার দিকে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও স্বজনপ্রীতির মাধ্যমে নিয়োগ পাওয়া, শিক্ষার্থীদের সাথে স্বৈরাচারী আচরণ এবং অনৈতিকভাবে শিক্ষার্থীদের নাম্বার কম দেয়ার অভিযোগ তুলে ক্লাস বর্জন করে নিজ বিভাগের সামনে এ অবস্থান কর্মসূচি পালন করে তারা।

আইআর বিভাগের শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, খোন্দকার পারভেজ সাবেক উপাচার্য খোন্দকার নাসিরউদ্দিনের ভাতিজা। ২০১৭ সালে সর্বপ্রথম সেকশন অফিসার হিসেবে বশেমুরবিপ্রবিতে যোগদান করেন তিনি। পরবর্তীতে অনার্স মাস্টার্সে দ্বিতীয় শ্রেণী থাকা সত্বেও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগে প্রভাষক পদে যোগদান করেন। এরপর মাত্র দেড়বছরেই সহকারী অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি পেয়ে বিভাগের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। প্রথমদিকে শিক্ষার্থীদের প্রতি স্নেহপূর্ণ আচরণ করলেও চেয়ারম্যান হওয়ার পর স্বেচ্ছাচারী হয়ে ওঠেন এই শিক্ষক। কথায় কথায় শিক্ষাজীবন নষ্ট করে দেয়ার হুমকি দিতে শুরু করেন তিনি। নিজের ক্ষমতা প্রদর্শনের জন্য এসাইনমেন্ট ও পরীক্ষায়ও অকারণেই নাম্বার কম দেন।

অবস্থান কর্মসূচিতে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা জানান, আমরা সাবেক ভিসির ভাতিজার অপসারণ চাই। তার চাচার ক্ষমতা দেখিয়ে এতোদিন তিনি আমাদের সাথে যে অন্যায় করেছেন তা থেকে আমরা মুক্তি চাই। ক্ষমতার জোরে ইচ্ছা মতো পরীক্ষার নাম্বার কমানো – বাড়ানো আমরা আর চাই না।

শিক্ষার্থীরা আরও জানান, তার শিক্ষাগত যোগ্যতাই নাই, তিনি কিভাবে বিভাগের চেয়ারম্যান হয়ে যান আমার বোধগম্য হয় না। ক্লাস নেয়ার ন্যূনতম যোগ্যতা তার নাই। উইকিপিডিয়া ফলো করে তিনি পড়ান। আমরা তার মতো উইকিপিডিয়া শিক্ষক চাই না। উইকিপিডিয়া আমাদের সকলের মোবাইলে আছে, প্রয়োজনে আমরা নিজেরা সেখান থেকে সব পড়ে নেব তবুও তার অপসারণ চাই।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও সংবাদ

Leave a Comment