হাবিপ্রবিতে ‘HSTU মজার ইস্কুল’ এর ৪র্থ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত

হাবিপ্রবিতে ‘HSTU মজার ইস্কুল’ এর ৪র্থ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত

হাবিপ্রবি টুডেঃ হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি) তে বর্ণাঢ্য আয়োজনে ‘HSTU মজার ইস্কুল’ এর ৪র্থ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে।

কর্মসূচির অংশ হিসেবে শনিবার (৯ নভেম্বর) বিকাল সাড়ে ৩ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়াম-১ এ আলোচনা সভা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য ও কৃষি অনুষদের ডীন প্রফেসর ড.ভবেন্দ্র কুমার বিশ্বাস। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড.মো.ইয়াসিন প্রধান, উদ্যানতত্ত্ব বিভাগের প্রভাষক নাজমিন আক্তার সহ মজার স্কুলের ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা ও তাঁদের অভিভাবকবৃন্দ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মজার স্কুলের সাধারণ সম্পাদক অনামিকা স্যানাল।

আশরাফুল আলম রনি ও হিমু এর সঞ্চালনায় অতিথিবৃন্দ ছাড়াও অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন শেখ রাসেল সম্প্রসারন হল শাখা ছাত্রলীগের কার্যকরী সদস্য মো.রিয়াদ খান। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মজার স্কুলের সাবেক সভাপতি শহিদুল ইসলাম ফাহিম, কার্যকরী কমিটির সদস্য দস্তগীর,হাসান,জেরিন শ্যামা, রিপা,শাকিল প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর ড.ভবেন্দ্র কুমার বিশ্বাস বলেন, দেশের মধ্যে এ ধরণের স্কুল খুব কাজ দেশে কমই আছে। লেখাপড়ার পাশাপাশি আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে যে কার্যক্রম পরিচালনা করছে তা অত্যন্ত মহৎ একটি কাজ। এখান থেকে লেখাপড়া শিখে আজকের শিশুরাই একদিন বড় বড় অফিসার হবে,দেশব্যাপী শিক্ষার আলোকে ছড়িয়ে দিবে। এটি যেমন আমাদের এ বিশ্ববিদ্যালয়ের যে শিক্ষার্থীরা তাঁদের পড়াচ্ছেন তাঁদের জন্য গর্বের ঠিক আমাদের জন্যও এটি অনেক বড় গর্বের।

তিনি আরও বলেন, আগে এই মজার স্কুলে গরীব ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষের সন্তানেরা পড়তে আসতো। এখন অনেক উচ্চবিত্ত, মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তানেরা এখানে পড়তে আসে। কেননা প্রতিবছর এখান থেকে এখন অনেক অনেক ভাল ছাত্র বের হয়ে ভালো ভালো জায়গায় যাচ্ছে । এখানকার যারা শিক্ষক তাঁরা এ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এবং তাঁদের পড়ার মান অনেক ভালো বলেই এসব সম্ভব হচ্ছে । আমি তাঁদের সর্বাঙ্গীন মঙ্গল ও সফলতা কামনা করছি।

আলোচনা সভা শেষে মজার স্কুলের শিক্ষার্থীদের মাঝে বিভিন্ন পরিক্ষায় ভালো ফলাফল ও প্রতিযোগিতায় সফলতার জন্য শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করা হয়। পরে কেক কেটে ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে মজার স্কুলের চতুর্থ বর্ষপূর্তি উদযাপন করা হয়।

উল্লেখ্য, ‘নিরক্ষরমুক্ত দেশ গড়া, মজার ছলে শেখাবো মোরা’ স্লোগানে দীপ্ত পথচলা মজার ইস্কুলের। ২০১৫ সালের ৯ নভেম্বর হতে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের একঝাঁক মেধাবী তরুণ-তরুনীর স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে সুবিধাবঞ্চিত ও অযত্ন-অবহেলায় বেড়ে ওঠা শিশুদের মাঝে জ্ঞানের আলো ছড়িয়ে দেয়ার দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে যাত্রা শুরু হয় ‘HSTU মজার স্কুল’ এর। এটি অরাজনৈতিক, অলাভজনক ও স্বেচ্ছাসেবী একটি সংগঠন।



সংবাদ প্রেরক দ্য ক্যাম্পাস টুডের হাবিপ্রবি প্রতিনিধি মোঃ তানভির আহমেদ।



সংবাদটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *